শ্রীকৃষ্ণের কৃপা পেতে মেনে চলুন জন্মাষ্টমী পুজোর নির্ঘণ্ট ও রাশি অনুযায়ী এই নিয়ম

1282
- Advertisement -

Image Source : Google

প্রভু শ্রীকৃষ্ণের কৃপা সকলের দরকার আর এই উদ্দেশ্যেই প্রতি বছর বৃন্দাবন সহ দেশজুড়ে অসংখ্য মানুষ কৃষ্ণের জন্মতিথি উপলক্ষে বিশেষ পুজোর আয়োজন করে থাকেন। এই দিনে বিশেষ ভোগ নিবেদনের মাধ্যমে ভগবান শ্রীকৃষ্ণের আরাধনা করে থাকেন মানুষ। তাহলে অবশ্যই আপনাকে জানতে হবে পুজোর নির্ঘন্ট।

- Advertisement -

নির্ঘন্ট: আগামী ১১ই অগস্ট ২০২০, মঙ্গলবার হল জন্মাষ্টমী। জন্মাষ্টমী পুজো মূলত রাতেই হয়ে থাকে। ১১ই আগস্ট রাত ১১.২০ থেকে রাত ১২.০৪ – এই ৪৪ মিনিট জন্মাষ্টমী পুজোর জন্য সবচেয়ে ভালো সময়। অন্যদিকে ১২ই আগস্ট অনুষ্ঠিত হবে নন্দ উৎসব।

ঘরে পুজো করার পদ্ধতি: বাড়িতে আপনি আপনার গোপালকে নিজেই পুজো করতে পারেন। প্রথমে আপনার গোপালকে পঞ্চামৃত অর্থাৎ দুধ, দই, ঘি, মধু আর চিনি দিয়ে আগে স্নান করান। স্নান করানোর মন্ত্র বলবেন ‘’ওম নমঃ ভগবতে বাসুদেবায়”। স্নানের পর নতুন বস্ত্র পরাবেন। হলুদ বা নীল রঙের বস্ত্রই গোপালের ক্ষেত্রে শুভ মানা হয়। অন্যদিকে আতপ চাল বাটা দিয়ে আলপনা দেবেন যা শুভ বলে মানা হয়। এবার নৈবেদ্য হিসাবে দেবেন মাখন আর মিছরি। এছাড়া পায়েসও দিতে পারেন। ভোগ হিসেবে লুচি, সুজি, আলুর দম এইসব দিতে পারেন। তবে ভোগে তুলসী পাতা অবশ্যই দেবেন।

রাশিফল অনুযায়ী পুজো করার পদ্ধতি:
সিংহ রাশি- গোলাপি রঙের বস্ত্র পরে অষ্টগন্ধের তিলক দিন।
বৃষ রাশি- সাদা বস্ত্র পরে পুজোয় বসে সাদা চন্দনের তিলক দিন কপালে।
বৃশ্চিক রাশি- লাল বস্ত্র পরে দুধের জিনিস ভোগে দিন।
মিথুন রাশি- ধুতি বা ঢিলেঢালা বস্ত্র পরে পুজোয় বসে কপালে চন্দনের তিলক দিন।
মেষ রাশি- লাল বস্ত্র পরে পুজোয় বসে কপালে সিঁদুরের তিলক লাগান।
কর্কট রাশি- সাদা বস্ত্র পরে দুধের তৈরি ভোগ দিন।
তুলা রাশি- গেরুয়া বস্ত্র পরে মাখন আর মিছরির ভোগ দিন।
কন্যা রাশি- সবুজ বস্ত্র পরে মালপোয়ার ভোগ দিন।
ধনু রাশি- হলুদ বস্ত্র পরে হলুদ রঙের মিষ্টি ভোগে দিন।
মীন রাশি- হলুদ বস্ত্র পরুন আর কেশর দেওয়া বরফি ভোগে দিন।
মকর রাশি- লাল-হলুদ মিশ্রিত পোশাক পরুন আর মিছরি ভোগ দিন।
কুম্ভ রাশি- নীল বস্ত্র পরুন আর বালুশাহী ভোগ দিন।

আরোও পড়ুন :