সৌদি আরবে কর্মরত নারীরা কিভাবে অত্যাচারের শিকার হচ্ছে, দেখুন চাঞ্চল্যকর তথ্য

465
- Advertisement -
ছবি : প্রতীকী

বাংলাদেশের হবিগঞ্জের আনন্দপুর গ্রামের বাসিন্দা হুসনা আক্তার (২৪)। বিয়ের তিনমাসের মাথায় আর্থিক স্বচ্ছলতার জন্য পাড়ি দিয়েছিলেন আরবে। এক দালাল তাকে আরবে বাড়িতে পরিচারিকার কাজ দেবে বলে নিয়ে যায় ‘আরব ওয়ার্ল্ড ডিস্ট্রিবিউটর’ নামের এক এজেন্সির মারফতে।

- Advertisement -

তবে আসল ছবি কিছুটা অন্যই। হুসনা আরবে পাড়ি দেন ১৭ দিন আগে। তবে তারপর থেকেই তার ওপর শুরু হয় অত্যাচার। নিজের ওপর অমানুষিক অত্যাচারের কথা তিনি আর থাকতে না পেরে সোশ্যাল মিডিয়ায় জানাতে বাধ্য হন। সাথে সাথে সেই ভিডিও ভাইরাল হয়। গোটা ভিডিও জুড়ে হুসনার আকুতি ভেসে আসে। অমানুষিক অত্যাচার করা হচ্ছে তার ওপর এমনটাই বার বার জানান তিনি।

অন্যদিকে তার স্বামী শহীদুল্লাহ থাকতে না পেরে এজেন্সিতে গিয়ে যোগাযোগ করলে সেখান থেকে তাঁকে বলা হয় হুসনা ১ বছরের জন্য গেছেন তার আগে তাকে ফিরিয়ে আনতে হলে ২ লক্ষ টাকা প্রয়োজন। তবে সেই টাকা দেওয়া একপ্রকার অসম্ভব হুসনার স্বামীর পক্ষে। অন্যদিকে স্ত্রীর আকুতিও তাকে ব্যাকুল করে তুলেছে। এখন তিনি প্রশাসনের সাহায্যের দিকে তাকিয়েই বসে আছেন।

আরোও পড়ুন :