‘ড্রাগ মাফিয়াদের সঙ্গে কোন যোগাযোগ নেই’, জানালেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

93
- Advertisement -

Rhea-&-Shouvik-Chakraborty-at-ED-office-in-mumbai-photos-HD

বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সুং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকেই দেশজুড়ে শুরু হয়েছে তোলপাড়। সিবিআই, ইডি, এনসিবি মিলে তদন্ত করছে এই ঘটনার। এর মধ্যেই সন্দেহের তীর সুশান্তের বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীর দিকে। সুশান্তের পরিবারেরও দাবি রিয়া টাকা পয়সার লোভেই সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন এবং সুশান্তকে জোর করে মাদক দিতেন।

- Advertisement -

ইতিমধ্যেই রিয়া এবং তার ভাই সৌভিক সহ সুশান্তের বাড়ির ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডাও রয়েছেন জেল হেফাজতে। একাধিক মাদক ব্যবসায়ীকেও গ্রেফতার করেছে এনসিবি। বলিউডের একাধিক ব্যক্তির নাম জেরার সময় প্রকাশ করেছেন রিয়া যারা বিভিন্ন পার্টিতে নিয়মিত ড্রাগস নিতেন।

জল গড়িয়েছে অনেকদূর। সংসদের বাদল অধিবেশনেও কথা হয়েছে এই ইস্যু নিয়ে। ইতিমধ্যেই জয়া বচ্চন কঙ্গনা রানাওয়াতকে উদ্দেশ্য করে কড়া প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। তবে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী যে কিষাণ রেড্ডি জানিয়েছেন গোটা লকডাউনের মধ্যে বলিউড সেলেবদের সঙ্গে মাদক ব্যবসায়ীদের যোগাযোগের কোনো প্রমাণ এখনো মেলেনি। তবে রিয়ার সঙ্গে যে মাদকব্যবসায়ীদের যোগ ছিল এবং মাঝেমধ্যেই তিনি মাদক কিনতেন এমন তথ্য রয়েছে এনসিবির হাতে। তাই আপাতত জামিন পাচ্ছেন না রিয়া।

আরোও পড়ুন :