হনুমানজির জপ করে কালো সূতো পরলে কি হয় জানেন ? অবাক হবেন

360
আরোও পড়ুন :
Image Source : Google

আমাদের সবারই জীবনে কিন্তু রং-এর একটা বিশেষ প্রভাব রয়েছে৷ এটাও শোনা যায় যে, বিভিন্ন বিভিন্ন জনের আবার নাকি বিভিন্ন রংয়ের মাধ্যমে তাঁদের ভাগ্য খোলে৷ কিন্তু কখনও ভেবেছেন যে এই রং যদি কখনো আপনার বিপক্ষে চলে যায় তাহলে আপনার ভাগ্য আর সোজা পথে নয়,উল্টো পথে হাঁটতে শুরু করে৷ আপনার স্বাস্থ্য, চিন্তা-ভাবনা এবং পরিস্থিতির উপরে এই রংয়ের অনেক প্রভাব রয়েছে৷ তবে হ্যাঁ এই রং কিন্তু কোনও রাজনীতির রং৷ অনেক বিশ্বাস-অবিশ্বাসের মতবাদ শোনা যায় এ বিষয়ে৷ তবে ওসবে কান না দিয়ে আসুন জেনে নেওয়া যাক এই রংয়ের কিন্তু গুরুত্ব :-

আরোও পড়ুন :

কালো রং-কে আমলা অনেকেই অশুভ বলে মনে করি৷ তাই বিয়ে বা অন্য কোনও শুভ কাজে আমরা কখনোই এই রং ব্যবহার করি না৷ কালো রং ব্যবহার করলে নাকি রাহুতে তার প্রভাব পড়ে বলে মনে করেছেন অনেকেই৷ যা আমাদের জীবনে ভয়ংকর সমস্যা ডেকে আনতে পারে৷ কিন্তু আমরা হয়তো এটাই কেউ জানিনা যে এই কালো রং আমাদের জীবনের অনেক সমস্যাও কিন্তু দূর করতে পারে৷ এমনকি আমাদের আর্থিক সঙ্কট থাকলেও এই কালো রং অনেকটাই উপকারী৷

Loading...

আপনিই একবার ভাবুন তো এই কালো রং যদি আমাদের জীবনে কখনও অমঙ্গল-ই ডেকে আনত তাহলে আমরা কেন কোনও খারাপ নজর থেকে বাঁচতে কালো টিকা বা কালো কার পড়ি!, ভেবেছেন কখনও? কেনই বা কালো সুতো ঘরের দরজায় বাঁধা হয়?

- Advertisement -

এটাও মনে করা হয় যে, কালো রং যে কোনও খারাপ জিনিসকে শোষণ করে নিয়ে আপনাকে বিপদ থেকে বের করে আনে৷ অনেকেই মনে করেন যে, মঙ্গলবার এবং শনিবার হনুমানজির পা-এ কালো সুতো রেখে পুজো করার পর তা যদি গলায় পড়া যায় তাহলে যে কোনও খারাপ দূর্ঘটনা অথবা আসন্ন বিপদ থেকে আপনি মুক্তি পাবেন৷ যদি ধনসম্পত্তি ও ঐশ্বর্য পেতে চান তাহলে সপ্তাহের এই দুটো দিনে মনে করে কালো রং-এর একটি রেশমি সূতো কিনুন, তার পর সেটা নিয়ে হনুমানজির মন্দিরে যান, গিয়ে তাঁর পায়ের সামনে বসে হনুমান চালিশা পড়তে পড়তে ওই কালো সুতোটিতে ৯টা গিঁট দিন৷ গিঁট দেওয়ার পর সেই সুতোতে বজরঙ্গবলির পায়ে যে সিঁদুর লাগনো হয়, তার অল্প একটু সিঁদুর নিয়ে ওই সুতোতে লাগান৷ এরপর হনুমানজির নাম জপ করতে করতে এই সুতোটি নিজের বাড়িতে নিয়ে চলে আসুন৷ বাড়ি ফিরে মেন গেটে সুতোটি বেঁধে দিন৷ শোনা যায় আপনিই যদি এটা করেন তাহলে নাকি আপনার বাড়িতে সুখ সমৃদ্ধি বিরাজ করবে৷ আপনি এটিকে আবার আপনার সিন্দুকেও বেঁধে রাখতে পারেন৷ তাতে অর্থ আসবে, বেরিয়ে যাবে না৷ যদিও হ্যাঁ এসব নিয়ে কিন্তু অনেকেই তর্ক-বিতর্কে জড়াতে পারেন৷ আবার অনেকের কাছেই কিন্তু এটাই তাঁদের উন্নতির একটি প্রধান উপায়৷

আরোও পড়ুন :